SSC জীববিজ্ঞান গাইড pdf | ssc biology guide pdf download

ssc biology guide book pdf download from Tunetuni.

ssc biology guide pdf download
বইঃজীববিজ্ঞান
শ্রেণীঃনবম-দশম
টাইপঃগাইড বই
ফরম্যাটঃপিডিএফ ফাইল(PDF)
ক্যাটাগরিঃSSC

SSC জীববিজ্ঞান গাইড pdf download

আসসালামুআলাইকুম প্রিয় এসএসসি শিক্ষার্থীবৃন্দ, কেমন আছো তোমরা সবাই ৷ আশা করছি আল্লাহর রহমতে ভালই আছো ৷ আজকে তোমাদের জন্য এসএসসি জীববিজ্ঞান গাইড বই পিডিএফ নিয়ে আসলাম ৷ তোমরা আমাকে অনেকই নক করে বলেছো যে, এসএসসি জীববিজ্ঞান গাইড বইয়ের পিডিএফ দেওয়ার জন্য ৷ আমরা এখানে বিজ্ঞান বিভাগের সকল গাইড বই পিডিএফ দিয়ে দিয়েছি ৷ তাছাড়া এখানে দেওয়া আছে মানবিক শাখার গাইড বই পিডিএফ, ব্যবসায় শাখার গাইড বই পিডিএফ ৷ আমাদের পুরো সাইটটি ভিজিট করে তোমরা তোমাদের প্রয়োজন বইগুলো পিডিএফ সংগ্রহ করতে পারো ৷ এসএসসি সকল বিভাগের বইয়ের পিডিএফ পেতে আমাদের এই SSC ক্যাটাগরিতে ক্লিক করুন ৷

এস এস সি জীববিজ্ঞান গাইড বই pdf download | SSC জীববিজ্ঞান গাইড ২০২২ pdf

প্রশ্ন : ১॥ কোষ প্রাচীরের ভৌত গঠন লিখ ।

উত্তর : কোষপ্রাচীর সাইটোপ্লাজম নিঃসৃত রাসায়নিক বস্তু দিয়ে গঠিত । পরিণত কোষপ্রাচীরে দুটি স্তর থাকে । যথা :

( ক ) প্রাথমিক কোষপ্রাচীর

( খ ) সেকেন্ডারি কোষপ্রাচীর ।

এই দুটি কোষের মধ্যবর্তী সাধারণ প্রাচীর স্তরটি মধ্য পর্দা নামে পরিচিত । পাশাপাশি অবস্থিত কোষগুলো কোষপ্রাচীরের সূক্ষ্ম ছিদ্রের ভেতর দিয়ে প্রোটোপ্লাজমের সূত্রবৎ অংশ দিয়ে পরস্পরের সাথে যুক্ত । এই সূত্রবৎ অংশটুকু প্লাজমোডেসমা নামে পরিচিত । পাশাপাশি অবস্থিত কোষের কূপগুলোর একটি অপরটির উল্টোদিকে মুখোমুখি অবস্থানের জন্যে কোষপ্রাচীরে সুক্ষ্ম ছিদ্রের সৃষ্টি হয় । মুখোমুখি অবস্থিত দুটি কূপকে পিট জোড় বলে ।

SSC biology guide pdf download

প্রশ্ন : ২॥ কোষপ্রাচীরের রাসায়নিক উপাদান কী কী ?

উত্তর : সেলুলোজ , পলিস্যাকারাইড ইত্যাদি দিয়ে কোষপ্রাচীর গঠিত । প্রোটোপ্লাজম থেকে নিঃসৃত সেলুলোজ , লেগনিন , পেকটিন ইত্যাদি জমা হয়ে প্রাথমিক কোষপ্রাচীর তৈরি হয় । আর সেকেন্ডারি কোষপ্রাচীর তৈরি হয় কিউটিন , সুবেরিন , মোম , ক্যালসিয়াম অক্সালেট ও নানাপ্রকার অজৈব লবনের সমন্বয়ে ।

প্রশ্ন : ৩॥ কোষপ্রাচীরের সুক্ষ্ম গঠন কেমন ?

উত্তর : প্রাথমিক কোষপ্রাচীর মূলত সেলুলোজ নির্মিত । এর মূল একক হলো বিভিন্ন দৈর্ঘ্যের শৃঙ্খলের মতো লম্বা বা সমান্তরাল সেলুলোজ অণু । সেলুলোজ অণুর মূল একক হচ্ছে গ্লুকোজ অণু গ্লুকোজের প্রায় 3000 টি অণুর পলিমার হচ্ছে সেলুলোজ অণু । যা বিশেষ নিয়মে পুঞ্জিভূত হয়ে ফিতা বা সুতার মত আকৃতি ধারণ করে । সেলুলোজ অণুসূত্র মাইসেলী নামে পরিচিত । সূত্রগুলোর প্রস্থদেশে প্রায় 100 টি সেলুলোজ অণু দেখা যায় । যার ব্যাস প্রায় 10nm । এর পরে সমান্তরাল প্রায় 20 টি করে মাইসেলী একত্রিত হয়ে দ্বিতীয় স্তরের অণুসূত্র তৈরী করে যা মাইক্রোফাইব্রিল নামে পরিচিত । এর ব্যাস প্রায় 25nm । pdf download

পরবর্তী পর্যায়ে প্রায় 250 টি মাইক্রোফাইব্রিল সমান্তরালভাবে একত্রিত হয়ে বেশ মোটা অণুসূত্র তৈরি করে । একে ম্যাক্রোফাইব্রিল বলা হয় । এর ব্যাস প্রায় 0.4nm । ম্যাক্রোফাইব্রিল হচ্ছে প্রাথমিক প্রাচীরের গঠনাকৃতি । এখানে সেলুলোজ ( 10-15 % ) , হেমিসেলুলোজ ( 5-10 % ) , পেকটিন উপাদান ( 2-8 % ) , প্রোটিন ( 1-2 % ) , লিপিড ( 0.5-30 % ) এবং প্রচুর পানি ( 60 % ) রয়েছে । আর সেকেন্ডারি কোষ প্রাচীর সেলুলোজ , পেকটিন , অসেলুলোজীয় পলিস্যাকারাইড , হেমিসেলুলোজ , লিগনিন এবং ফোনোলিক এর পলিমার দিয়ে গঠিত । অর্সেলুলোজ পলিস্যাকারাইডের মধ্যে রয়েছে অ্যারাবিনোজ , জাইলোজ , ম্যানোজ ও গ্যালাকটোজ নামক শর্করা । সেকেন্ডারি প্রাচীরে উপস্থিত সেলুলোজ প্রাথমিক স্তরের মতো ম্যাক্রোফাইব্রিল অণুসূত্রে সজ্জিত হয়ে এটি আরও দৃঢ়ভাবে বিন্যস্ত থাকে ।

Also Link: SSC Math solution book pdf

Download Now SSC Biology guide Book Pdf

SSC জীববিজ্ঞান গাইড pdfডাউনলোড করুন

error: Content is protected !!