শুদ্ধ বানান বই pdf download | শুদ্ধ অশুদ্ধ বানান pdf

Bangla suddho osuddho banan book pdf download from tunetuni.

শুদ্ধ বানান বই pdf download || Bangla Suddho Banan Book Pdf

pdf download

সময় বদলের সঙ্গে সঙ্গে ভাষারও বিবর্তন ঘটে । ভাষা থেকে শুধু বহু শব্দ ঝরেই পড়ে না অনেক নতুন শব্দ যুক্তও হয় ; ভাষাকে করে সমৃদ্ধ । কখনও কখনও শব্দের পুরনাে অর্থও পাল্টে যায় । শুধু তাই নয় , বানানও পাল্টায় । ভাষাকে সুশৃঙ্খল করার জন্য ব্যাকরণ অপরিহার্য । হলেও বাস্তবে দেখা যায় ব্যাকরণের নিয়মকে অগ্রাহ্য করেই বহু শব্দ তৈরি হচ্ছে , সেগুলাে নির্দ্বিধায় ব্যবহৃতও এটি ভাষা ।

গতিশীলতাই প্রমাণ করে । বহু ভাঙ্গাগড়ার পর বাংলা বানানের একটি প্রমিত রূপ তৈরি হয়েছে । এই রূপটির সঙ্গে আমাদের অনেকের পরিচয় নেই । এই বইয়ে বাংলা বানানের সাধারণ নিয়মগুলাে তুলে ধরা হয়েছে । এছাড়াও শব্দের আধুনিক বানান , শব্দের ব্যবহার , বাক্যগঠন , যতিচিহ্নসহ প্রয়ােজনীয় কিছু বিষয় সংক্ষেপে বলা হয়েছে । শুদ্ধ ও ভালাে বাংলা লেখার ব্যাপারে বইটি হতে পারে আপনার বিশ্বস্ত সঙ্গী ।

বাংলা বানান pdf download || বাংলা শুদ্ধ বানান pdf

কথায় আছে , বলা সহজ লেখা কঠিন । ব্যাপারটা কিন্তু সত্যিই তাই । শুদ্ধ ও ভালাে বাংলা লেখা খুব সহজ নয় । ব্যাকরণ না জেনেও আমরা স্বচ্ছন্দে বাংলা বলতে পারি , কিন্তু লেখার সময় আমাদের কিছু নিয়ম মানতেই হয় । এ জন্য ব্যাকরণের কিছু জ্ঞান জরুরি । ব্যাকরণের নাম শুনেই ভীত হওয়ার কারণ নেই , এটি ব্যাকরণের বই নয় ; তবে এতে ব্যাকরণের কিছু নিয়মকানুন রয়েছে । আমরা লিখতে চাই শুদ্ধ ও সাবলীল বাংলা ।

এ জন্য লিখতে হবে ছােট ছােট ও জটিলতামুক্ত বাক্য । এতে পড়তে ও বুঝতে সুবিধা হয় । বাক্যে কর্তৃবাচ্যকে প্রাধান্য দিন । খুব প্রয়ােজন না হলে কর্মবাচ্য বা ভাববাচ্যে বাক্য লিখবেন না । বাক্যগুলাের মধ্যে যাতে পূর্বাপর সঙ্গতি থাকে সেদিকেও লক্ষ্য রাখুন । শব্দ চয়ন ও ব্যবহারের ক্ষেত্রে সতর্ক হােন । কারণ মনের ভাব প্রকাশের জন্য যথাযথ শব্দটির ব্যবহার জরুরি । সঠিক শব্দটি ব্যবহার করতে না পারলে বাক্যটি হয়ে উঠতে পারে দুর্বোধ্য ।

শুদ্ধ অশুদ্ধ বানান pdf download || শুদ্ধ বানান বই pdf

লেখার ভেতরে অন্তর্নিহিত এক ধরনের ছন্দ ও সৌন্দর্য থাকে , সেদিকে খেয়াল রাখুন । কানে বেসুরাে ঠেকে এমন শব্দ বাক্যে ব্যবহার করবেন না । মনের ভাবটিকে পূর্ণভাবে প্রকাশের জন্য উপযুক্ত যতি বা বিরাম চিহ্ন ব্যবহার করুন ; রক্ষা করুন সর্বনামের সঙ্গে ক্রিয়াপদের সঙ্গতি । বর্জন করুন গুরুচণ্ডালী দোষ ।

বাক্য জটিল ও দীর্ঘ হলে পাঠক মনােযােগ হারিয়ে ফেলেন এবং অর্থ বুঝতেও অনেক সময় সুবিধা হয় । মন নিবিষ্ট করতে পারেন না বলেই তিনি আর লেখাটি পড়ার উৎসাহ বােধ করেন না । আর পাঠক না পড়া মানেই আপনার লেখাটি মাঠে মারা যাওয়া । সে জন্যই এ ধরনের বাক্য একদম লেখা যাবে না । এর বদলে ছােট বাক্যের মধ্যেই স্বচ্ছভাবে ফুটিয়ে তুলতে হবে নিজের মনােভাব ও বক্তব্য । এর পরও জটিল বা দীর্ঘ কিছু বাক্য আমাদের লিখতেই হয় । তখন সতর্ক থাকতে হবে , যাতে বাক্যে পূর্বাপর সঙ্গতি থাকে ।

জটিল ও দীর্ঘ বাক্যের একটি উদাহরণ দিচ্ছি — উত্তরাধিকার একদিকে যেমন সমাজশক্তির অন্যতম উৎস তেমনই অন্যদিকে দুর্বহ ভারও যার চাপে সমাজদেহ কুজও হতে পারে , বিশেষত ভারতবর্ষের মতাে দেশে , যে – দেশের ইতিহাস নিরবচ্ছিন্নভাবে সাড়ে চার হাজার বছর জুড়ে ব্যাপ্ত । ‘ বাক্যটি শুধু জটিল নয় , কিছুটা অস্বচ্ছও । এই বাক্যে — ভারও ‘ ও ‘ যার ‘ শব্দ দুটির মাঝখানে কমা না দেওয়ায় তা অনেকটা দুর্বোধ্য হয়ে পড়েছে ।

কাজেই জটিল বাক্য না লিখে ছােট – ছােট বাক্য গঠনের ওপরই জোর দেয়া উচিত । আর এ ক্ষেত্রে কর্তৃবাচ্যকে প্রাধান্য দেওয়া প্রয়ােজন । কর্মবাচ্য দিয়েও বাক্য গঠন করা যায় , এতে দোষের কিছু নেই । কিন্তু কর্তৃবাচ্যে যদি লিখি তবে বিষয়টি আমরা আরও সরাসরি ব্যক্ত করতে পারি ।

All Bangla Academy Bookলিংকে ক্লিক করে বইটি ডাউনলোড করুন

Download Now Bangla Suddho Banan Book Pdf

1. শুদ্ধ অশুদ্ধ বানান বই pdf

pdf download

Downloadলিংকে ক্লিক করে বইটি ডাউনলোড করুন

2. বাংলা বানান ও লেখার নিয়মকানুন বই pdf

Downloadলিংকে ক্লিক করে বইটি ডাউনলোড করুন

error: Content is protected !!