বিভিন্ন ফিকহের তুলনামূলক পর্যালোচনা pdf download

Rate this post

ড. আবু বকর মো: জাকারিয়া মজুমদার এর বই বিভিন্ন ফিকহের তুলনামূলক পর্যালোচনা pdf রচনায় : ড. আবূ বকর মোঃ জাকারিয়া মজুমদার পৃষ্ঠা : ৩২০ সাইজ : ১৬ মেগাবাইট

সর্বপ্রথম আল্লাহর প্রশংসা আদায় করছি যিনি ফিকহ শিক্ষার প্রতি গুরুত্বারােপ করেছেন এবং আল্লাহর রাস্তায় প্রত্যক্ষ জিহাদে অংশগ্রহণ থেকে একটি শ্রেণীকে বিরত থেকে ফিকহ শিক্ষায় রত হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন । মহান আল্লাহ বলেন , মুমিনদের সকলের একসাথে অভিযানে বের হওয়া সংগত নয় , ওদের প্রত্যেক দলের এক অংশ বের হয় না কেন , যাতে তারা স্বীনের মধ্যে গভীর জ্ঞান চর্চায় রত থাকতে পারে এবং তাদের সম্প্রদায়কে ভীতিপ্রদর্শন করতে পারে , যখন তারা তাদের কাছে ফিরে আসবে যাতে তারা সতর্ক ‘ হয় । সূরা আত – তাওবাহ : ১২২ ; অর্থ বােঝা , অনুধাবন করা ; সূক্ষ্মভাবে বােঝা । আর অর্থ কোন কিছু পরিশ্রম করে অর্জন করা ও তাতে লেগে থাকা । সেমতে বাক্যের মর্ম হবে , তারা যৈন দ্বীন অনুধাবনের জন্য কঠোর পরিশ্রমের মাধ্যমে তাতে দক্ষতা হাসিল করে । ” বলা বাহুল্য , সালাত , সাওম , হজ্ব ও থাকাতের মাসআলা – মাসায়েল জানাকেই দ্বীনকে অনুধাবন করা বলা যাবে না ।

বরং দ্বীনের সত্যিকার অনুধাবন হলাে , তাকে দলীল প্রমাণসহ এমনভাবে ােৈঝা – যা তার মধ্যে এ উপলব্ধি সৃষ্টি করবে যে , এ সংক্রান্ত প্রতিটি কর্থী ও কর্ম এবং যাবতীয় গতিবিধির হিসাব দিতে হবে আখিরাতে । দুনিয়ার এ জীবন তাকে কিরূপে অতিবাহিত করতে হবে — মূলত এই চিন্তাই হলো দ্বীন অনুধাবন । এজন্য ইমাম আবু হানীফা রহমতুল্লাহি আলাইহি ‘ ফি ’ – এর যে সংজ্ঞা নিরূপণ করেছেন তা হলো এই যে , “ ফিকহ্ সে শাস্ত্রকে বলা হয় , যাতে মানুষ নিজের করণীয় কাজকে বুঝে নেয় এবং সে সকল কাজকেও বুঝে নেয় যা থেকে বেঁচে থাকা তা জন্য জরুরী।বর্তমানে মাসআলা – মাসায়েলের জ্ঞানকেই যে ইলমে – ফিকহ বলা হয় জ ’ পরবর্তী যুগের পরিভাষা । কুরআন ও হাদীস অনুযায়ী ফিকহ – এর অৎপর্য তাই , যা ইমাম আবু হানিফা রাহিমাহুল্লাহ্ বর্ণনা করেছেন । সত্যিকার ফিকহ অর্জন করতে হলে কুরআনের পরিভাষায় তা অর্জন করতে বে । জীন সম্পর্কে গভীর প্রজ্ঞা ভু অর্জন করা জরুরী । মামুলী মাসআলা – মাসায়েল জানার চেয়ে মাসআলা – মাসায়েলের উৎস ও দলীল – প্রমাণাদির জ্ঞানই অর্জন করতে su১১ , হবে । যাকে আল্লাহ্ এ জ্ঞান দিয়েছেন সেই সত্যিকারের কল্যাণ লাভ করেছে । রাসূলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন , “ আল্লাহ্ যার কল্যাণের ইচ্ছা করেন তাকে দ্বীনের গভীর জ্ঞান দান করেন , আমি তাে কেবল বন্টনকারী আর আল্লাহই হলেন প্রদানকারী , এ উম্মত সর্বদা আল্লাহর নির্দেশের উপর প্রতিষ্ঠিত থাকবে যারা তাদের বিরােধিতা করবে তারা তাদের কোন ক্ষতি করতে পারবে না , যতক্ষণ না আল্লাহর নির্দেশ আসে ।

” বুখারী : ৭১ ] এ হাদীস থেকে বােঝা যায় যে , যতক্ষণ ‘ ফিকহ ফিদ্বীন ’ থাকবে ও উম্মতের একটি বিরাট অংশ ফিকহ চায় রত থাকবে ততদিন এ দ্বীনের ক্ষতি কেউ করতে পারবে না । এ উম্মতের প্রাথমিক যুগ থেকে শুরু করে আজ পর্যন্ত কুরআন ও সহীহ হাদীসকে মূল ভিত্তি করে উম্মতের সত্যনিষ্ঠ আলেমগণ ফিকহ শাস্ত্রের বিকাশ সাধন করে গেছেন । তাঁদের প্রত্যেকেরই উদ্দেশ্য ছিল হক জানা ও তা প্রতিষ্ঠা করা । তাঁদের প্রচেষ্টার সওয়াব তারা একগুণ বা দু’গুণ পাবেনই । তাদের মতামতের পক্ষে বা বিপক্ষে যে সমস্ত দলীল – প্রমাণ রয়েছে তা উল্লেখপূর্বক বিচার – বিশ্লেষণ করার মত গভীর পর্যালােচনামূলক কাজই তুলনামূলক ফিকহচর্চার উর্বর ক্ষেত্র । এ কাজটি করার প্রয়ােজনীয়তা সর্বযুগেই পরিলক্ষিত হয়েছিল তবে আজকের বিশ্বায়নের যুগে তার প্রয়ােজনীয়তা যে অনেক বেশি তা বলার অপেক্ষা রাখে না ।

কাজটির প্রয়ােজনীয়তা উপলব্ধি করার পাশাপাশি এর ব্যাপকতা ও কষ্টসাধ্য হওয়াও লক্ষণীয় । কারণ ফিকহের বিভিন্ন দিক আলােচনা করে ইতােমধ্যে আরবী ভাষায় অনেক বড় বড় বিশ্বকোষও তৈরি হয়েছে । আবার ফিকহ – এর অনেক পরিভাষার বাংলা ভাষাভাষী মানুষের মন – মানস মােতাবেক সঠিক অনুবাদ করাও দুরূহ । এমতাবস্থায় আমার পক্ষে এর গভীরে যাওয়ার জন্য যে সময় ও সাধ্য দরকার তার কতটুকু আমি করতে পেরেছি তা আল্লাহ্ তাআলাই ভাল জানেন । তবে আশার বিষয় এই যে , ইসলামিক ফাউন্ডেশনের মত গুরুত্বপূর্ণ প্রতিষ্ঠান এ কাজ আঞ্জাম দেয়ার জন্য গুরুত্বের সাথে এগিয়ে এসেছে । তাদের এ প্রচেষ্টা সফলতার মুখ দেখবে বলে আমি বিশ্বাস করি এবং মহান আল্লাহর কাছে এর জন্য দো’আ করছি ।

tunetuni pdf download

Google drive থেকে ডাউনলোড করুন- Download

যেভাবে ডাউনলোড করবেন- দেখুন